হাবিপ্রবির বরেণ্য উপাচার্য প্রফেসর ডঃ এম. আবুল কাসেম » Rangpur Live হাবিপ্রবির বরেণ্য উপাচার্য প্রফেসর ডঃ এম. আবুল কাসেম » Rangpur Live
  1. admin@rangpurlive.news : admin :
  2. aglovelu@gmail.com : Ag Lovelu : Ag Lovelu
  3. hasanhasanuzzaman286@gmail.com : hasan lalmoni : hasan lalmoni
  4. hasankrum@gmail.com : rangpur newspapers : rangpur newspapers
  5. Motiar@gmail.com : Rangpur News : Rangpur News
  6. jmnayon4@gmail.com : J M Ali Nayon : J M Ali Nayon
  7. arsadalom074@gmail.com : Nilphamari News : Nilphamari News
  8. onbusinesstouch@gmail.com : Rangpur protidin : Rangpur protidin
  9. Talatmahamudruhan@gmail.com : তালাত মাহামুদ : তালাত মাহামুদ
  10. sylhetlive1@gmail.com : rangpurlivebdgg rangpurlivebdhk : rangpurlivebdgg rangpurlivebdhk
  11. sylhetlive71@gmail.com : Sub house : Sub house
  12. zulfikarali31@yahoo.com : Sub Editor : Sub Editor
September 27, 2020, 11:04 am
বিজ্ঞপ্তি :
এতোদ্বারা রংপুর বিভাগের সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, করোনা ভাইরাস রোধে আপনারা ঘরের ভিতর হোম কোয়ারেন্টাইন এ থাকুন, সুস্থ থাকুন আপনার পরিবার নিয়ে... ধন্যবাদান্তে রংপুর লাইভ।
ব্রেকিং নিউজ
কুড়িগ্রামে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত, ভয়াবহ বন্যার আশঙ্কা কিশোরগঞ্জে  ইউপি চেয়ারম্যানের নিজস্ব অর্থায়নে রাস্তা নির্মাণ  উলিপুরে ফ্রি ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় ও রক্তদানে সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত পঞ্চগড়ে বন্যায় পানিবন্দী পরিবারের মধ্যে শুকনো খাবার বিতরণ কিশোরগঞ্জে কালভার্টের মুখ বন্ধ করে মাছ চাষ পানিবন্দি শতাধিক পরিবার ২০৩০ সালের মধ্যে সব মাধ্যমিকে ডিজিটাল অ্যাকাডেমি: প্রধানমন্ত্রী ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে আরও ৪৬ টন পেঁয়াজ আমদানি বিএনপি নেতারা কোনও উন্নয়ন দেখে না: হানিফ অবসর ভাতা না পেয়ে বিপাকে ফুলবাড়ীর ৭’শ কর্মকর্তা-কর্মচারী নবাবগঞ্জে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে গৃহকর্তা নিহত

হাবিপ্রবির বরেণ্য উপাচার্য প্রফেসর ডঃ এম. আবুল কাসেম

  • প্রকাশের সময় Saturday, June 13, 2020
  • 233 প্রকাশের সময়
হাবিপ্রবির বরেণ্য উপাচার্য প্রফেসর ডঃ এম. আবুল কাসেম
হাবিপ্রবির বরেণ্য উপাচার্য প্রফেসর ডঃ এম. আবুল কাসেম
খবরটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

কৌশিকঃ

উত্তরাঞ্চলের একমাত্র এবং বাংলাদেশের দ্বিতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ডঃ এম.আবুল কাসেম।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে আসীন হওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ে কে নিয়ে গেছেন এক অনন্য উচ্চতায়। আজ তার দৃঢ় প্রচেষ্টায় বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের পরিবেশ এবং লেখাপড়ার মান কে করেছেন আরও মানসম্পন্ন। বিশ্ববিদ্যালয় কি তিনি সাজিয়েছেন আধুনিক স্থাপত্য শৈলী প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সংমিশ্রণে। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত ছাত্রাবাস এবং আধুনিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করেছেন তিনি। আজ বিশ্ববিদ্যালয়টিতে সর্বোচ্চ বৈদেশিক শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে যা অত্যন্ত গৌরবের বিষয়।

উপাচার্য প্রফেসর ডঃ আবুল কাসেম এর বাস্তবায়িত পাঁচটি উদ্যোগ উল্লেখযোগ্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা,কর্মচারীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নিশ্চিত করেন। কৃষি গবেষণা কর্মকাণ্ড ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে “কৃষি গবেষণা কমপ্লেক্স” প্রতিষ্ঠা করেন। এ গবেষণা কমপ্লেক্সে ডেইরি, পোল্ট্রি,মৎস্য, এবং শস্য উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে গবেষণা করা হয়। বৃহত্তর দিনাজপুরের কৃষক পরিবারের সেবা প্রদানের লক্ষ্যে “ভ্রম্যমান ভেটেনারি ক্লিনিক” চালু করেন। কৃষক পরিবারের গৃহপালিত গবাদি পশু প্রাণীর চিকিৎসা প্রদানের লক্ষ্যে সকল সুযোগ সুবিধা সম্পন্ন অত্যাধুনিক ভ্রাম্যমান ভেটেনারি ক্লিনিকটি হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম বাংলাদেশে শুরু করে। তার এই উদ্যোগের ফলে বৃহত্তর দিনাজপুরের কৃষক পরিবারগুলো অত্যন্ত উপকৃত হচ্ছে। বৃহত্তর দিনাজপুরের কৃষকদের কৃষি সেবা প্রদানের লক্ষ্যে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় “কৃষি সেবা কেন্দ্র” স্থাপন করেন। উপাচার্যের বাস্তবায়িত এই উদ্যোগও বাংলাদেশে প্রথম‌। বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য গ্র্যাজুয়েটদের চাকরি, পিএইচডি, ফেলোশিপ, বিদেশে স্কলারশিপ ইত্যাদি সেবা এবং পরামর্শের লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে “ক্যারিয়ার এডভাইজারী সার্ভিস” তিনি নিজ হাতে শুরু করেন। এই সার্ভিস এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রী বৃন্দ তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে সঠিক দিকনির্দেশনা পাচ্ছেন।

নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়কে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত। বিশ্ববিদ্যালয়ে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রেগিং এর মত অপপ্রথার বিরুদ্ধে।

লালমনিরহাট জেলার বড়খাতা ইউনিয়নের নিজ শেখ সুন্দর গ্রামের মুসলিম(সুন্নি) পরিবারের সন্তান প্রফেসর ডঃ এম. আবুল কাসেম। পিতা মৌলভী নুর আহমেদ আকন্দ মাতা জমিরুন নেসা। ১৯৬৮ সালে রাজশাহী বোর্ড থেকে প্রথম বিভাগে মাধ্যমিক পাস করেন এবং ১৯৭০ সালে রাজশাহী বোর্ড হতে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। এরপর তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের ভর্তি হন এবং ১৯৭৪ সালে প্রথম বিভাগ নিয়ে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি ১৯৭৫ সালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। শিক্ষা প্রশিক্ষণ বিষয়ে উচ্চতর প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন আমেরিকার Wisconsin University থেকে ১৯৭৯ সালে । অতঃপর তিনি ১৯৮৩ সালে কমনওয়েলথ স্কলারশিপ নিয়ে যুক্তরাজ্যে গমন করেন এবং ১৯৮৬ সালে যুক্তরাজ্যের রিডিং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৯৯৭-৯৮ সালে JSPS স্কলারশীপ নিয়ে জাপানের হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয় এ আমন্ত্রিত গবেষক হিসাবে পোস্টডক্টরাল গবেষণা কাজে অংশগ্রহণ করেন।

স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর কর্মজীবনের শুরুতে তিনি কৃষি মন্ত্রণালয়ের শস্য রক্ষণাবেক্ষণ পরিদর্শক হিসেবে এক বছর চাকরি করেন এরপর বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটে বৈজ্ঞানিক অফিসার হিসেবে চাকরি করেন।তবে ইচ্ছা ছিল অর্জিত জ্ঞান মানুষকে বিলিয়ে দেবার তাই তিনি প্রভাষক হিসেবে ময়মনসিংহ গ্রাজুয়েট ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে শিক্ষকতা শুরু করেন ১৯৭৯ সালে এক বছর পর তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। তার মেধা দক্ষতা এবং কর্তব্যনিষ্ঠার কারণে ক্রমান্বয়ে তিনি সহকারী প্রফেসর, সহযোগী প্রফেসর এবং প্রফেসর পদে অধিষ্ঠিত হন। ২০১৫ সালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স স্পেশালিস্ট হিসেবে যোগদান করেন। এরপর ২০১৭ সালে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন।

অসাধারণ বুদ্ধিদীপ্ত এবং মেধাবী তিনি জীবনের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন বিষয়ের উপর জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ে বিশেষ শিক্ষা অথবা প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি কৃষি ক্ষেত্রে প্রযুক্তির প্রয়োগ কৃষকদের প্রযুক্তি ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করন এবং তাদের নিকট কৃষি তথ্য প্রেরণ এবং এর প্রয়োগ ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে বিভিন্ন গবেষণা করেন যা কৃষি ক্ষেত্রে অত্যন্ত ফলপ্রসূ দিকনির্দেশনা প্রদান করছে।

প্রশাসনিকভাবে তিনি খুব দক্ষ। উপাচার্যের দায়িত্ব সুনিপুণ ভাবে পালনের পাশাপাশি তিনি হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আর্কিটেকচার বিভাগের চেয়ারম্যান, ফিশারীজ অনুষদের ডীন, কৃষি সেবা কেন্দ্রের পরিচালক এবং ক্যারিয়ার অ্যাডভাইজারি সার্ভিসের পরিচালক হিসাবে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করেন। বাকৃবিতে শিক্ষকতার পাশাপাশি কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলের ডাইরেক্টর ছিলেন। বাংলাদেশ এগ্রিকালচার এক্সটেনশন সোসাইটির সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদক ছিলেন তিনি।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্লাটফর্মে বিভিন্ন বিষয়ে সেমিনার, কনফারেন্স এবং কর্মশালায় অংশগ্রহণ করে পেপার প্রেজেন্টেশন করেন।

কৃষি, কৃষি সম্প্রসারণ, প্রযুক্তি হস্তান্তর, যোগাযোগ প্রক্রিয়া, নারী ক্ষমতায়ন, টেকসই কৃষি উন্নয়ন সহ বহু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তার গবেষনালব্ধ লিখনি প্রকাশিত হয়েছে দেশে এবং দেশের বাইরে বিভিন্ন বইয়ে।আন্তর্জাতিক জার্নালে ৩৫ টিরও বেশি এবং ১৪৫ টিরও বেশি জাতীয় জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে তার গবেষণা। কারিগরি গবেষণা রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে ২৫ টি।তার বৈজ্ঞানিক জনপ্রিয় সকল আর্টিকেল দেশের বিভিন্ন জাতীয় পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

ডঃ এম. আবুল কাসেম স্বাধীনতার স্বপক্ষের আদর্শ লালনকারী একজন ব্যক্তি। তিনি ১৯৬৭সালে ছাত্রলীগের সদস্য হন এবং ছাত্র জীবনের শেষ পর্যন্ত তার প্রাণের সংগঠন ছাত্রলীগ করেন। তিনি ১৯৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধে এপ্রিল মাসে মুক্তিবাহিনীর সাথে ভারতের জলপাইগুড়িতে কাজ করেন। বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি আওয়ামীলীগ সমর্থিত সংগঠন ‘গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরাম’ এর সদস্য হন। ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরামের নির্বাহী সদস্য এবং ২০০০ সালে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। ২০০১ সালে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ফেডারেশনে ট্রেজারার নির্বাচিত হন। ২০০৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত “বঙ্গবন্ধু কৃষি গবেষণা পরিষদ” ময়মনসিংহে নির্বাহী সদস্য হিসেবে কাজ করেন।

Facebook Comments

খবরটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জেলার আরও খবর পড়ুন
© All rights reserved © (2016-2019) Rangpur Live.News The website host& design by- Rebnal Host
Theme Customized By BreakingNews