বাগেরহাটে বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসে দুই বোনের একসঙ্গে আত্মহত্যা

বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলায় আড়ুয়া বর্ণি গ্রামে একসঙ্গে দুই বোন বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। মঙ্গলবার (২ মার্চ) রাতে বিষপানের পর তাদের পার্শ্ববর্তী জেলা গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার (৩ মার্চ) সকালে তারা মারা যান। মৃতরা হলেন- বৃষ্টি বেগম (১৯) ও প্রীতি বেগম (১৮)। তারা সম্পর্কে চাচাতো বোন।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর শরিফুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আড়ুয়া বর্ণি গ্রামের শামীমের স্ত্রী বৃষ্টি বেগম ও যশোর সদর উপজেলার দেলোয়ার খানের স্ত্রী প্রীতি বেগম উপজেলার কানন চক গ্রামে তাদের বাবার বাড়ি বেড়াতে আসেন। মঙ্গলবার গভীর রাতে তারা দুজন প্রীতি বেগমের বাবার ঘরের মধ্যে বিষপান করেন। পরিবারের লোকজন টের পেয়ে রাতেই তাদের গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। বুধবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

পরিবারের সদস্যরা জানান, দুজনে আপন চাচাতো বোন হলেও তারা বান্ধবীর মতো চলাফেরা করতেন। তাদের দুজনেরই একটি করে সন্তান রয়েছে। তবে কী কারণে বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন, তা জানা যায়নি।

আত্মহত্যার রহস্য উৎঘাটনের পুলিশ তদন্ত করছে বলে জানান ওসি মীর শরিফুল হক।

শেয়ার করুন-

Leave a Reply